গোলাম আযমসহ পাঁচ জামায়াত নেতার বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন চূড়ান্ত

জামায়াতে ইসলামীর সাবেক আমির গোলাম আজম, বর্তমান আমির মতিউর রহমান নিজামী, সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদ, সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মোহাম্মদ কামারুজ্জামান ও সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আবদুল কাদের মোল্লার বিরুদ্ধে তদন্ত শেষ করে প্রতিবেদন চূড়ান্ত করেছে মানবতাবিরোধী অপরাধ তদন্ত সংস্থা। কাল মঙ্গলবার সকালে এ তদন্ত প্রতিবেদন রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলিদের কাছে দাখিল করা হবে।
আজ সোমবার বেলা সাড়ে তিনটার দিকে তদন্ত সংস্থার বেইলি রোডের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তদন্ত সংস্থার সমন্বয়ক আবদুল হান্নান খান সাংবাদিকদের এসব কথা জানান। আবদুল হান্নান খান বলেন, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের নির্দেশনা অনুযায়ী নিজামীসহ চার নেতার বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। এ চারজনের বিরুদ্ধে গত বছরের ২১ জুলাই থেকে তদন্ত শুরু করা হয়। চূড়ান্ত প্রতিবেদন তৈরির কাজ আজ শেষ হয়েছে। এ চারজনকে গত বছরের ২ আগস্ট গ্রেপ্তার দেখানো হয়।
আবদুল হান্নান খান আরও বলেন, গোলাম আজমের বিরুদ্ধে গত বছরের ১ আগস্ট তদন্ত শুরু হয়। ট্রাইব্যুনালের নির্দেশনা না থাকলেও তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়া হচ্ছে। প্রতিবেদনে গোলাম আজমকে গ্রেপ্তারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।

আব্দুল হান্নান বলেন, ‘দেশবাসী আমাদের দিকে তাকিয়ে আছে। আমরা আদালতের কাছে সময় চাইতে পারতাম। কিন্তু সময় চাইনি।’
যুদ্ধাপরাধীদের শীর্ষ নেতা গোলাম আযমসহ জামায়াতের ৫ নেতার বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন চূড়ান্ত করা হয়েছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘আগামীকাল সকালে এ প্রতিবেদন চিফ প্রসিকিউটরের কাছে হস্তান্তর করা হবে।’ এ সময় ন্যুরেমবাগ ট্রাইব্যুনালের চিফ প্রসিকিউটর রবার্ট এইচ জ্যাকসনের উদাহরণ টেনে আনেন তিনি।
হান্নান বলেন, ‘রবার্ট ট্রাইব্যুনালের বিচারপতিদের বলেছিলেন আসামিদের শক্রদের দিয়ে তাদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেওয়া হচ্ছে না। বরং তাদের মিত্রদের রেখে যাওয়া নথিপত্রই তাদের বিরুদ্ধে সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমাদের দেশেও একই অবস্থা। জামায়াতের মুখপাত্র দৈনিক সংগ্রামই তাদের বিরুদ্ধে সাক্ষী। এছাড়া তাদের লেখা বিভিন্ন বইপত্রই তাদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিচ্ছে।’  গোলাম আযমের ব্যাপারে তিনি বলেন, তিনি হচ্ছেন শীর্ষ নেতা, যিনি মুক্তিযুদ্ধের সময় শান্তি কমিটির নেতৃত্ব দিয়েছেন এবং পাকিস্তানি বাহিনীকে সহায়তা করেছেন।

Golam Azam

Advertisements

Leave a comment

Filed under War crimes

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s