মসজিদে হামলার গুজব ছড়িয়ে তাণ্ডব ফটিকছড়িতে

Fatikchariহরতালবিরোধী একটি মিছিল চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলা সদর থেকে নয় কিলোমিটার উত্তরের এলাকা ভুজপুর থেকে আবারো উপজেলা সদরের দিকে ফিরছিল। হঠাত্ স্থানীয় মসজিদের মাইকে কেউ একজন ঘোষণা দিলো, ‘মসজিদে হামলা হচ্ছে, আগুন দিচ্ছে সন্ত্রাসীরা।’ ঘোষণায় আরো বলা হয়, ‘মাদ্রাসার হুজুরকে তুলে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।’এরপর হাজার হাজার লোক মিছিলকারীদের ঘেরাও করে হামলা চালায়। মুহূর্তেই রণক্ষেত্রে পরিণত হয় ওই এলাকা। কিছুক্ষণ পরই রাস্তার পাশে আহত ও সংজ্ঞাহীন অবস্থায় পড়ে থাকলেন অনেকেই। এই রণক্ষেত্রের মাঝে তাঁদের উদ্ধার করার যেন কেউই ছিল না সে সময়। এই হামলা ছড়িয়ে পড়ল আরও দূরে কাজিরহাট এলাকা পর্যন্ত। সেখানে সড়কের ওপরই শত শত গাড়ি ও মোটরসাইকেল হামলাকারীদের আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। আর এর আশপাশেই ছড়িয়ে ছিটিয়ে অসংখ্য আহত মানুষ।
ফটিকছড়ি উপজেলার ভুজপুর এলাকায় গতকাল বৃহস্পতিবার ঘটে যাওয়া তাণ্ডবের এভাবেই বর্ণনা করছিলেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।
প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে প্রথম আলোর অনলাইন সংস্করণ জানায়, পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী আওয়ামী লীগ ফটিকছড়িতে হরতালবিরোধী মিছিল বের করে। মিছিলের নেতৃত্ব দেন গত সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের পরাজিত প্রার্থী এ টি এম পেয়ারুল ইসলাম। দুই শতাধিক মোটর সাইকেল, প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস ও চান্দের গাড়িতে করে পাঁচ শতাধিক নেতা-কর্মী ওই মিছিলে অংশ নেন। মিছিলটি কাজিরহাট বাজার অতিক্রম করার সময় মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে হাজারো মানুষ হামলা চালায়। এতে তিনজন নিহত ও প্রায় ১৫০ জন আহত হন। পরে গতকাল বিকেল থেকে ভুজপুর এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করে প্রশাসন।
ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকা নানুপুরের কিপাইত নগরের আবুল কাসেম বলেন, ‘জামায়াত-শিবির ও হেফাজতের কর্মীরা এ হামলা করেছে। আমাদের মিছিলটি কাজিরহাট বাজারের কাছে পৌঁছালে তারা আমাদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। তাদের সবার হাতে ছিল লাঠি, দা ও কিরিচ।’
ওই হামলায় আহত ফটিকছড়ির ধর্মপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মাহমুদুল হক জানান, হামলাকারীরা তাঁকে চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে। তাদের সবার হাতে ছিল লাঠি, কিরিচ ও রামদা। এ সময় তারা মাহমুদুলের মাথায় আঘাত করে। এতে তাঁর মাথা ফেটে যায়।
গতকালের এই তাণ্ডবের ঘটনায় আজ শুক্রবার অজ্ঞাতনামা চার-পাঁচ হাজার মানুষকে আসামি করে মামলা করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় জামায়াতের নেতাসহ ৩৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ভুজপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নুরুন্নবী চৌধুরী বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

Advertisements

Leave a comment

Filed under Bangladesh

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s