সংসদে অশালীন বক্তব্য আর দেবে না বিরোধী দল!

বিরোধী দল বিএনপি জাতীয় সংসদে আর ‘অশালীন’ ও ‘অসংসদীয়’ বক্তব্য দেবে না। আজ রবিবার দুপুরে বিএনপির সংসদীয় দল স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে দেখা করে এই আশ্বাস দিয়েছে।
বিরোধী দলের সঙ্গে সাক্ষাতের পর স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। স্পিকার বলেন, ‘বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা সংসদে অশোভন, অসংসদীয় ও আক্রমণাত্মক ভাষার ব্যবহার নিয়ে কথা বলেছেন। এসব ভাষার ব্যবহার রোধে স্পিকার হিসেবে আমার ভূমিকা কী হবে, সেটা নিয়ে কথা হয়েছে।’

শিরীন শারমিন বলেন, ‘ওনারা সব সময়ই বলেন যে, ওনারা আর কখনো অসংসদীয় বক্তব্য দেবেন না। এবারও সেটাই বলেছেন।’রাজনৈতিক বক্তব্যের জবাব রাজনৈতিকভাবেই দেওয়া উচিত বলে স্পিকার মনে করেন। তিনি বলেন, ‘অসংসদীয় বক্তব্য যেগুলো আসছে, বা কে কী ধরনের কথা বলবেন, সেটা নিয়ন্ত্রণ বা নির্ধারণ করা আমার কাজ নয়। এটা কথা বলার অধিকারে হস্তক্ষেপের শামিল। এ ক্ষেত্রে সবারই উচিত কার্যপ্রণালী বিধি মেনে কথা বলা।’মাইক বন্ধ করা স্পিকারের জন্য সুখকর নয় বলে জানিয়ে শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, ‘হুইপ আ স ম ফিরোজ ও বিরোধী দলের এম কে আনোয়ার এ ধরনের কোনো বক্তব্য এলে মাইক বন্ধ করে দিতে বলেছেন। কিন্তু কে কী বলবেন, সেটা তো আমি আগে জানতে পারি না। বলে ফেললে আমি ইন্টারফেয়ার করতে পারি, সতর্ক করতে পারি। মাইক বন্ধ করাটা সর্বশেষ সিদ্ধান্ত। সব সময় মাইক বন্ধ করলে এটার আর গুরুত্ব থাকে না। আর এটা কেন করতে হবে! এতে সংসদের মুক্ত আলোচনার আবহ বন্ধ হয়ে যাবে।’
স্পিকারের সঙ্গে সাক্ষাত্ শেষে বিরোধী দলের ভারপ্রাপ্ত চিফ হুইপ শহীদ উদ্দীন চৌধুরী বলেন, ‘আমরা সৌজন্য সাক্ষাতে গিয়েছিলাম। এ ব্যাপারে গণমাধ্যমে কোনো কথা না বলার সিদ্ধান্ত হয়েছে।’
গত ৯ জুন সংসদ অধিবেশনে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠানে বিরোধী দলের দাবি মেনে নিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির সংসদ সদস্য ফেনীর বাসিন্দা রেহানা আক্তার রানু। রেহানা তার অঞ্চলের ভাষায় সরকারকে হুঁশিয়ার করে বলেন, ‘তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়া কোনো চুদুরবুদুর চইলত ন।’
সংরক্ষিত মহিলা আসনের এই সংসদ সদস্যের বক্তব্য নিয়ে সরকারি দলের সংসদ সদস্যরা প্রতিবাদমুখর হয়ে ওঠেন। রেহানা আক্তারের বক্তব্য ‘অশোভন’ দাবি করে তা কার্যবিবরণী থেকে বাদ দিতেও আহ্বান জানান হুইপ আ স ম ফিরোজ। এরপর স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, ওই বক্তব্য পরীক্ষা করে ৩০৭ বিধি অনুযায়ী কার্যবিবরণী থেকে বাদ দেওয়া হবে।
বিরোধী দলের দুই সংসদ সদস্য রেহানা ও সৈয়দা আশিফা আশরাফী পাপিয়ার বক্তব্যকে কেন্দ্র করে স্পিকার সংসদ সদস্যদের শালীন ভাষায় কথা বলার আহ্বান জানান। রেহানার আগে আশিফা আশরাফীর বক্তব্য নিয়েও সংসদে উত্তেজনা দেখা দেয়।

Advertisements

Leave a comment

Filed under Bangladesh, Politics

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s