Category Archives: Crimes against huminity

সত্যকে মিথ্যা প্রমাণ করার নিষ্ফল চেষ্টা সাকার

S Q injuredমুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি দেশে ছিলেন না- এ কথা প্রমাণ করার হাজারো চেষ্টা করেছেন একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে দণ্ডিত সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরী (সাকা চৌধুরী)। কিন্তু আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের দেওয়া রায়ে সাকার সেই কথা মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে। সাকা ১৯৭১ সালের স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় চট্টগ্রামে অবস্থান করছিলেন বলে প্রমাণিত হয়েছে। সেখানে তাঁর উপস্থিতির বিষয়ে সাক্ষ্য-প্রমাণ পাওয়া গেছে বলে রায়ে স্পষ্ট করে বলা হয়েছে। Continue reading

Leave a comment

Filed under Bangladesh liberation war, Crimes against huminity, War crimes

কাদের মোল্লার ফাঁসি ও মওদুদের মামাবাড়ির আবদার

quader-mollah-mowdudএকাত্তরে কসাই কাদের নামে পরিচিত জামায়াত নেতা ও আলবদর আব্দুল কাদের মোল্লার রিভিউ আবেদনের নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ফাঁসির আদেশ কার্যকর না করার দাবি জানিয়েছে জামায়াতের প্রধান শরিক বিএনপির আইনজীবী সংগঠন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম। আজ বুধবার ফোরামের উপদেষ্টা ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী ভবনে সংবাদ সম্মেলন করে এই দাবি তুলে ধরেন। লিখিত বক্তব্যে মওদুদ বলেন, ‘সংবিধানের ১০৫ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী আপিল বিভাগের রায় পুনর্বিবেচনা করার জন্য নাগরিদের রিভিউ করার অধিকার নিশ্চিত করা আছে। কিন্তু আমরা অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে লক্ষ্য করছি, সরকারের পক্ষ থেকে আব্দুল কাদের মোল্লাকে তার রিভিউ করার অধিকার থেকে বঞ্চিত করে তার ফাঁসির আদেশ কার্যকর করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। সংবিধানে রিভিউ করার যে বিধান রয়েছে সেটাই দেশের সর্বোচ্চ আইন এবং এই আইনকে আমরা কার্যকর দেখতে চাই।’ Continue reading

Leave a comment

Filed under Crimes against huminity, Politics

বেঁচে থাকলে খুশি হতেন বদি-রুমিদের মায়েরা

Jahanara Imam-Rawshanara১৯৭১ সালে অবরুদ্ধ বাংলাদেশে হানাদার পাকিস্তান সেনাবাহিনীর নজরদারি ও নিয়ন্ত্রণ সবচেয়ে বেশি ছিল রাজধানী ঢাকায়। নগরীতে সেনাবাহিনীর সার্বক্ষণিক টহল তো ছিলই, তার ওপর নগরবাসীর কাছে আরেক আতঙ্ক ছিল অবাঙালি বিহারিরা। শহীদ জননী জাহানারা ইমামের ভাষায়, ‘প্রায় প্রায়ই গুজবের ঢেউ এসে আছড়ে পড়ে- মোহাম্মদপুর-মিরপুর থেকে বিহারিরা দলে দলে বেরিয়ে পড়ে এদিকপানে আসবে। একটা তাৎক্ষণিক হৈচৈ পড়ে যায় চারপাশে।’ পাকিস্তানি জল্লাদ বাহিনী, বিহারি আর স্থানীয় রাজাকার-আলবদরদের হাতে পুরোপুরি নজরবন্দি অবস্থায় ছিল ঢাকায় থেকে যাওয়া বাঙালিরা। এক শ্বাসরুদ্ধকর পরিবেশ- রাত নামলেই ব্ল্যাকআউট, কারফিউ আর বাড়ির দরজায় আতঙ্কজনক কড়ানাড়া, বাড়ি বাড়ি তল্লাশি। এমন এক অবরুদ্ধ, অন্ধকার, আতঙ্কের নগরীতে একরাশ আলোর ঝলকানি ছড়িয়ে দিয়েছিলেন একদল মুক্তিপাগল মেধাবী তরুণ বাঙালি। তাঁদের দলের নাম ছিল ক্র্যাক প্লাটুন। অনেকেই বলত ‘বিচ্ছু বাহিনী’। বদি, রুমী, জুয়েল, স্বপন, কামাল, আজাদ, আলম, আলতাফ মাহমুদ… একঝাঁক উজ্জ্বল তারকা নিয়ে গঠিত হয়েছিল সেই বিচ্ছু দল। তাঁদের কেউ নামকরা ছাত্র, কেউ সুরকার, কেউ খেলোয়াড়। Continue reading

Leave a comment

Filed under Bangladesh liberation war, Crimes against huminity, History

গোলাম আযমকে অনুকম্পা দেখানো কতটা ন্যায্য?

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশে সংঘটিত গণহত্যা ও মানবতাবিরোধী অপরাধের প্রধান ষড়যন্ত্রকারী, উসকানিদাতা এবং রাজাকার, আলবদর, আলশামসের মতো প্যারামিলিটারি গড়ার মূল কারিগর গোলাম আযমের বিরুদ্ধে পাঁচ ধরনের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়া সত্ত্বেও তাঁকে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড না দিয়ে ৯০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। বিচারপতি এ টি এম ফজলে কবীরের নেতৃত্বাধীন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ গত সোমবার এই রায় ঘোষণা করেন। রায়ে বলা হয়েছে, গোলাম আযমকে ৯০ বছর অথবা আমৃত্যু কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে। রায়ের পর্যবেক্ষণে বলা হয়েছে, ন্যায়বিচারের স্বার্থে এবং স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতি বিবেচনায় গোলাম আযমের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডই প্রাপ্য। কিন্তু তাঁর বয়স ৯১ বছর ও শারীরিকভাবে তিনি অসুস্থ। ২০১২ সালের ১১ জানুয়ারি কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেওয়া হলেও অসুস্থতার কারণে সেদিন থেকেই ট্রাইব্যুনালের নির্দেশে তাঁকে হাসপাতালের প্রিজন সেলে রাখা হয়েছে। এ বিষয়টি বিবেচনা করে মৃত্যুদণ্ডের পরিবর্তে কারাদণ্ড দেওয়া হলো। Continue reading

Leave a comment

Filed under Crimes against huminity

সাকা নাকি দেশেই ছিলেন না, তাহলে আহত হয়েছিল কে?

মুক্তিযুদ্ধের সময় দেশে ছিলেন না বলে দাবি করেছেন একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী। মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় নিজের পক্ষে সাফাই সাক্ষ্য দিতে গিয়ে সোমবার এই দাবি করেন বিএনপির এই নেতা, যাকে একাত্তরে প্রত্যক্ষভাবে নির্যাতন চালাতে দেখার কথা ট্রাইব্যুনালে বলেছেন রাষ্রট্রপক্ষের সাক্ষীরা। আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ এ সোমবার অষ্টম দিনের মতো সাক্ষ্য দেন সাকা। তিনি বলেন, একাত্তরের ২৯ মার্চ বিকালে করাচির উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছিলেন তিনি। অক্টোবর পর্যন্ত পাকিস্তানে থেকে তারপর লন্ডন চলে যান তিনি এবং ১৯৭৪ সাল পর্যন্ত তিনি যুক্তরাজ্যেই ছিলেন। তিনি আরো বলেন, ২৯ মার্চ তাকে তেজগাঁও বিমানবন্দরে পৌঁছে দেন চাচাত ভাই কাইয়ুম রেজা চৌধুরী। সন্ধ্যায় তিনি করাচি বিমানবন্দরে নামলে তাকে নিতে আসেন তার স্কুলজীবনের বন্ধু মুনীব আর্জুমান্দ খান এবং মাহমুদ হারুনের (ডন গ্রুপ অব পাবলিকেশন্সের কর্ণধার) ব্যক্তিগত সহকারী। করাচিতে তিন সপ্তাহ অবস্থানকালে মাহমুদ হারুনের বাড়িতে ছিলেন বলে জানান সালাউদ্দিন কাদের। সালাউদ্দিন কাদের বলেন, করাচিতে থাকার সময় সালমান এফ রহমান, নিজাম আহমেদ, কাইয়ুম রেজা চৌধুরী, আরিফ জিওয়ানি, ওসমান সিদ্দিক ও রেজাউর রহমানের সঙ্গে তার চলাফেরা ছিল। তিনি বলেন, ওই সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ট্রান্সফার নিয়ে মে মাসে পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন তিনি। তখন নটরডেম কলেজে পড়াকালীন বন্ধু হাসনাইন খুরশেদের সঙ্গে তার দেখা হয় এবং দুজনই দীর্ঘসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগারে কাটাতেন। সালাউদ্দিন কাদের বলেন, একাত্তরের অগাস্ট মাসে তিনি মারিতে বেড়াতে যান এবং সেপ্টেম্বরের শেষ দিকে তিনি লাহোরে ফিরে আসেন। Continue reading

Leave a comment

Filed under Bangladesh liberation war, Crimes against huminity

আলবদরের প্রধান সংগঠকের ফাঁসির রায়

K Zamanএকাত্তরে আলবদর বাহিনীর প্রধান সংগঠক, জামায়াতে ইসলামীর বর্তমান সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মুহাম্মদ কামারুজ্জামানের বিরুদ্ধে অপহরণ, নির্যাতন, হত্যা, ধর্ষণসহ একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের পাঁচটি অভিযোগ সুনির্দিষ্টভাবে প্রমাণিত হয়েছে। এসবের মধ্যে দুটি অভিযোগে তাকে সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার আদেশ দেওয়া হয়েছে। অন্য দুটি অভিযোগে যাবজ্জীবন এবং আরেকটি অভিযোগে ১০ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও মো. শাহিনুর ইসলাম সমন্বয়ে গঠিত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ এ রায় ঘোষণা করে। মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলার এটি চতুর্থ রায়। Continue reading

Leave a comment

Filed under Bangladesh, Crimes against huminity

কলঙ্ক মোচনের আরেক রায় কাল : এবার পালা আলবদর বাহিনীর প্রধান সংগঠক কামারুজ্জামানের

Dainik Bangla 31-12-71মুহাম্মদ কামারুজ্জামান বাংলাদেশের স্বাধীনতাবিরোধী রাজনৈতিক দল জামায়াতে ইসলামীর বর্তমান সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল। তিনি জামায়াতের মুখপত্র দৈনিক সংগ্রামের সাবেক নির্বাহী সম্পাদক। ১৯৭১ সালের ১৬ আগস্ট দৈনিক সংগ্রামে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে কামারুজ্জামানকে আলবদর বাহিনীর প্রধান সংগঠক হিসেবে উল্লেখ করা হয়। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর তিনি গ্রেপ্তারও হয়েছিলেন। ১৯৭১ সালের ৩১ ডিসেম্বর দৈনিক বাংলায় ‘আরো ১৫ জন দালাল গ্রেফতার’ শিরোনামে এক প্রতিবেদনে সরকারি তথ্য বিবরণীর বরাত দিয়ে অন্যদের সঙ্গে কামারুজ্জামানের গ্রেপ্তার হওয়ার খবরটি প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনে কামারুজ্জামানকে শেরপুরের আলবদর হিসেবে পরিচয় দেওয়া হয়। কামারুজ্জামানের বিরুদ্ধে একাত্তরে সংঘটিত মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলার রায় আগামীকাল বৃহস্পতিবার ঘোষণা করা হবে। আজ বুধবার বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ এ কথা জানান। Continue reading

Leave a comment

Filed under Bangladesh, Crimes against huminity