Category Archives: Politics

পথহারা এরশাদের কথায় পথের দিশা

Ershadজাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, নির্বাচনের প্রশ্নে তিনি পথ খুঁজে পাচ্ছেন না। নির্বাচনে অংশ নিলে তাঁকে সবাই বেইমান বলবে। আর নির্বাচনে অংশ না নিলে দেশের ভবিষ্যত্ অনিশ্চিত। আজ শনিবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতীয় যুব সংহতির কাউন্সিল অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। এরশাদ বলেন, নির্বাচনে অংশগ্রহণের প্রশ্নে তিনি পথ হারিয়ে ফেলেছেন। তিনি দিশেহারা। কী হবে, এই ভেবে তিনি ‘বিনিদ্র রজনী’ কাটাচ্ছেন। এরশাদ বলেন, ‘ক্ষমতা হস্তান্তর হয় তিনভাবে। নির্বাচন, সশস্ত্র সংগ্রাম ও মিলিটারি ক্যুর মাধ্যমে। বঙ্গবন্ধুকে সেনাসদস্যরা হত্যা করেছিল, মোশতাককে সেনাসদস্যরা উত্খাত করেছিল। সাত্তারকে সরিয়ে আমি এসেছিলাম। এরপর আর কোনো ক্যু হয়নি। ক্ষমতায় যেতে হবে ভোটের মাধ্যমে। এখন মহাজোটে আছি। মহাজোটে থেকে নির্বাচন করলে লোকে বেইমান বলবে। বেইমান হয়ে আমি মরতে চাই না। আবার নির্বাচনে অংশ না নিলে কী হবে, আমরা জানি না। উভয় সংকট।’
নির্বাচনের প্রশ্নে এরশাদ পথ হারিয়ে ফেলার কথা বললেও তার ওই বক্তব‌্যের মধ্যেই পথের দিশা দেখিয়েছেন তিনি। তার কথা থেকে স্পষ্ট যে ‘দেশদরদী’ এরশাদ নির্বাচনে অংশ নেবেন, কারণ তা না হলে যে ‘দেশের ভবিষ্যত্ অনিশ্চিত’!

Leave a comment

Filed under Bangladesh, Politics

কাদের মোল্লার ফাঁসি ও মওদুদের মামাবাড়ির আবদার

quader-mollah-mowdudএকাত্তরে কসাই কাদের নামে পরিচিত জামায়াত নেতা ও আলবদর আব্দুল কাদের মোল্লার রিভিউ আবেদনের নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ফাঁসির আদেশ কার্যকর না করার দাবি জানিয়েছে জামায়াতের প্রধান শরিক বিএনপির আইনজীবী সংগঠন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম। আজ বুধবার ফোরামের উপদেষ্টা ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী ভবনে সংবাদ সম্মেলন করে এই দাবি তুলে ধরেন। লিখিত বক্তব্যে মওদুদ বলেন, ‘সংবিধানের ১০৫ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী আপিল বিভাগের রায় পুনর্বিবেচনা করার জন্য নাগরিদের রিভিউ করার অধিকার নিশ্চিত করা আছে। কিন্তু আমরা অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে লক্ষ্য করছি, সরকারের পক্ষ থেকে আব্দুল কাদের মোল্লাকে তার রিভিউ করার অধিকার থেকে বঞ্চিত করে তার ফাঁসির আদেশ কার্যকর করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। সংবিধানে রিভিউ করার যে বিধান রয়েছে সেটাই দেশের সর্বোচ্চ আইন এবং এই আইনকে আমরা কার্যকর দেখতে চাই।’ Continue reading

Leave a comment

Filed under Crimes against huminity, Politics

এবার খেপেছেন সরকারদলীয় নারী এমপি

সংসদে বিরোধীদলীয় একাধিক নারী এমপির অশালীন বক্তব্যের পর এবার খেপেছেন সরকারদলীয় এক নারী এমপি। বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়া এবং তাঁর মায়ের চরিত্র নিয়ে যাচ্ছেতাই মন্তব্য করেন সরকারদলীয় সদস্য অপু উকিল। খালেদা জিয়ার নিজের ও তাঁর সন্তানের পিতৃত্ব নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। অপু উকিল গতকাল বৃহস্পতিবার সংসদে বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে বলেন, খালেদা জিয়ার মা লক্ষ্মী রানী মারমা দার্জিলিংয়ের চা-বাগানের মালিক উইলসনের ‘চাকরানি’ ছিলেন। পাকিস্তানের সাবেক সেনা কর্মকর্তা সিদ্দিক সালিকের ইন্দো-পাকিস্তান ওয়ার অব ১৯৬৫ বইটির বরাত দিয়ে তিনি এসব বক্তব্য দেন। বক্তব্য দেওয়ার সময় লাল মলাটের বইটি তুলে ধরে প্রদর্শন করেন তিনি। Continue reading

Leave a comment

Filed under Bangladesh, Politics

অশালীন বক্তব্য না দেওয়ার আশ্বাস এক সপ্তাহও টিকলো না

গত ১৬ জুন দুপুরে বিএনপির সংসদীয় দল স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে দেখা করে আশ্বাস দিয়েছিল, বিরোধী দল জাতীয় সংসদে আর ‘অশালীন’ ও ‘অসংসদীয়’ বক্তব্য দেবে না। সেই আশ্বাস দেওয়ার পর সপ্তাহ না ঘুরতেই আবার সংসদে ‘ছি’ ‘ছি’রব উঠল বিএনপির সংসদ সদস্য শাম্মী আক্তারের পড়া কবিতা নিয়ে। ওই কবিতার একটি শব্দে আপত্তি জানিয়ে সরকারি দলের সদস্যরা ‘ছি’ ‘ছি’ করে উঠলে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী তা কার্যবিবরণী থেকে বাদ (এক্সপাঞ্জ) দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানান।
গতকাল বুধবার বাজেট নিয়ে আলোচনায় সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য শাম্মী কবি হেলাল হাফিজের একটি কবিতার অংশ থেকে পড়তে থাকেন। তিনি বলেন, ‘গুছাইয়া-গাছাইয়া লন, বেশি দিন পাইবেন না সময়/আলামত যা দেখতাছি মানুষের হইবোই জয়/আমিও গেরামের পোলা…. গাইল দিতে জানি।’ এই কবিতাংশ বলে শাম্মী বক্তব্য শেষ করার সঙ্গে সঙ্গে বিরোধী দলের সদস্যরা টেবিল চাপড়ে তাকে সমর্থন জানান। অন্যদিকে সরকারি দলের সদস্যরা ‘ছি’ ‘ছি’ বলতে থাকেন। শাম্মীর বক্তব্যের পর স্পিকার শিরীন শারমিন বলেন, ‘আপনার বক্তব্যে কিছু অসংসদীয় শব্দ আছে। সেগুলো এক্সপাঞ্জ করা হবে।’
গত ৯ জুন সংসদ অধিবেশনে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি মেনে নিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান বিএনপির সংসদ সদস্য ফেনীর বাসিন্দা রেহানা আক্তার রানু। রেহানা তার অঞ্চলের ভাষায় সরকারকে হুঁশিয়ার করে বলেন, ‘তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়া কোনো চুদুরবুদুর চইলত ন।’

Leave a comment

Filed under Bangladesh, Politics

সংসদে অশালীন বক্তব্য আর দেবে না বিরোধী দল!

বিরোধী দল বিএনপি জাতীয় সংসদে আর ‘অশালীন’ ও ‘অসংসদীয়’ বক্তব্য দেবে না। আজ রবিবার দুপুরে বিএনপির সংসদীয় দল স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে দেখা করে এই আশ্বাস দিয়েছে।
বিরোধী দলের সঙ্গে সাক্ষাতের পর স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। স্পিকার বলেন, ‘বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা সংসদে অশোভন, অসংসদীয় ও আক্রমণাত্মক ভাষার ব্যবহার নিয়ে কথা বলেছেন। এসব ভাষার ব্যবহার রোধে স্পিকার হিসেবে আমার ভূমিকা কী হবে, সেটা নিয়ে কথা হয়েছে।’ Continue reading

Leave a comment

Filed under Bangladesh, Politics

সংলাপের উদ্যোগ ভেস্তে যাবে!

নির্দলীয়, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের দাবি মেনে নিতে সরকারকে ৪৮ ঘণ্টার সময় বেঁধে দিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেতা, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। সংলাপে বসতে প্রধানমন্ত্রীর প্রস্তাব উত্থাপনের দুদিন এবং তাতে সাড়া দিতে আহ্বানের কয়েক ঘণ্টার মধ্যে শনিবার মতিঝিলে ১৮ দলীয় জোটের সমাবেশে বিরোধী দলের অবস্থান জানান তিনি। দাবি পূরণ না হলে টানা অবস্থান কর্মসূচির হুঁশিয়ারিও দেন বিএনপি চেয়ারপারসন। এর ফলে সংলাপের উদ্যোগ ভেস্তে যাচ্ছে বলেই মনে হয়। খালেদা জিয়ার এ বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় ১৪ দলের নেতারা বলেছেন, আলটিমেটাম দিয়ে কখনো দাবি আদায় হবে না। তাঁদের মতে, প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া না দিয়ে খালেদা জিয়া দেশকে সংঘাতের দিকে ঠেলে দিয়েছেন। আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ‘তাঁদের অযৌক্তিক আবদার মেনে নেওয়া হবে না।’ নাসিম বিরোধীদলীয় নেতার উদ্দেশে বলেন, ‘তিনি সংলাপ চান না, সংঘাত চান। গত চার বছরে গণতান্ত্রিক আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে এ ধরনের সংঘাতের পথ বেছে নিয়েছেন। তাঁর আলটিমেটাম ৪৮ ঘণ্টায় কেন, ৪৮ মাসেও মানা হবে না।’ Continue reading

Leave a comment

Filed under Bangladesh, Politics

মার্কিনীরা যাকে মাথায় তুলে তাকে নিয়ে তো সজাগ থাকতেই হয়

সাবেক সোভিয়েত প্রেসিডেন্ট মিখাইল গরবাচভকে নিয়ে একবার মেতেছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা। নোবেল শান্তি পুরস্কার থেকে শুরু করে হরেক কিসিমের পুরস্কার ও পদক দেওয়া হয় তাকে। তার লেখা বই ছাপা হওয়ার আগেই তা নিয়ে তোলপাড় শুরু করা হয়। যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিম ইউরোপে বেস্ট সেলার তালিকায় ঠাঁই পায় গরবাচভের বই। অবশেষে তাকে দিয়েই বাজানো হয় সমাজতান্ত্রিক সোভিয়েত ইউনিয়নের মৃত‌্যুঘণ্টা। গত কয়েক বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা মেতে উঠেছে বাংলাদেশের ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে নিয়ে। তাকেও দেওয়া হচ্ছে একের পর এক পুরস্কার ও পদক। অতএব বাংলাদেশ সাবধান!

Leave a comment

Filed under Politics